০৬:৩৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জামিনে মুক্ত হয়ে যা বললেন ইমরান খান

  • Reporter Name
  • আপডেট সময় : ০৬:২৩:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩
  • ১০৩ দেখেছেন

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানফাইল । ছবি: এএফপি

ইসলামাবাদ হাইকোর্টের (আইএইচসি) একটি ডিভিশন বেঞ্চ শুক্রবার পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খানকে আল-কাদির ট্রাস্ট মামলায় দুই সপ্তাহের জামিন দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট আইএইচসি প্রাঙ্গণ থেকে তার গ্রেপ্তারকে ‘অবৈধ এবং বেআইনি’ বলে ঘোষণা করার একদিন পর জামিন পান তিনি। খবর ডনের।

বিচারপতি মিয়াঙ্গুল হাসান আওরঙ্গজেব এবং বিচারপতি সামান রাফাত ইমতিয়াজের সমন্বয়ে গঠিত একটি ডিভিশন বেঞ্চ ২ নম্বর কোর্টরুমে পিটিআই প্রধানের জামিন আবেদনের শুনানি করেন। এই মামলার বিস্তারিত আদেশের জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছে কিন্তু ইমরান আল-কাদির ট্রাস্ট মামলার ব্যাপারে মুক্ত।

ইমরানের আইনজীবীরা চারটি অতিরিক্ত আবেদনও দাখিল করেছেন যা আইএইচসিকে ইমরানের বিরুদ্ধে সমস্ত মামলাকে একত্রিত করতে এবং তার বিরুদ্ধে নথিভুক্ত করা মামলার বিবরণ দেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

প্রায় দুই ঘণ্টা বিলম্বের পরে প্রাথমিকভাবে শুনানি শুরু হয়েছিল।

কিন্তু জুম্মার নামাজের কারণে দুপুর ১টায় শুরু হওয়ার পরপরই সেগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। অন্যদিকে, জিও নিউজ জানিয়েছে, বিচারকরা ‘ইমরানপন্থী’ স্লোগান তোলার পরে আদালত কক্ষ ছেড়ে চলে গেছেন।

দুপুর আড়াইটার পর আবার শুনানি শুরু হলে ইমরান তার আইনি দলের সঙ্গে আদালতে উপস্থিত ছিলেন এবং তার আইনজীবী খাজা হারিস তার যুক্তি উপস্থাপন করেন।

হারিস আদালতে বলেন, জাতীয় জবাবদিহি ব্যুরোর (এনএবি) পদক্ষেপগুলি বেআইনি। তদন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্তে পরিণত হওয়ার পরেই এনএবি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করতে পারে।

লেখকের পরিচিতি

জনপ্রিয় সংবাদ

রোড মার্চ সফল করার লক্ষ্যে নাঙ্গলকোটে বিএনপির গনমিছিল ও সমাবেশ

জামিনে মুক্ত হয়ে যা বললেন ইমরান খান

আপডেট সময় : ০৬:২৩:৪৯ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১২ মে ২০২৩

ইসলামাবাদ হাইকোর্টের (আইএইচসি) একটি ডিভিশন বেঞ্চ শুক্রবার পিটিআই চেয়ারম্যান ইমরান খানকে আল-কাদির ট্রাস্ট মামলায় দুই সপ্তাহের জামিন দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট আইএইচসি প্রাঙ্গণ থেকে তার গ্রেপ্তারকে ‘অবৈধ এবং বেআইনি’ বলে ঘোষণা করার একদিন পর জামিন পান তিনি। খবর ডনের।

বিচারপতি মিয়াঙ্গুল হাসান আওরঙ্গজেব এবং বিচারপতি সামান রাফাত ইমতিয়াজের সমন্বয়ে গঠিত একটি ডিভিশন বেঞ্চ ২ নম্বর কোর্টরুমে পিটিআই প্রধানের জামিন আবেদনের শুনানি করেন। এই মামলার বিস্তারিত আদেশের জন্য অপেক্ষা করা হচ্ছে কিন্তু ইমরান আল-কাদির ট্রাস্ট মামলার ব্যাপারে মুক্ত।

ইমরানের আইনজীবীরা চারটি অতিরিক্ত আবেদনও দাখিল করেছেন যা আইএইচসিকে ইমরানের বিরুদ্ধে সমস্ত মামলাকে একত্রিত করতে এবং তার বিরুদ্ধে নথিভুক্ত করা মামলার বিবরণ দেওয়ার জন্য কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

প্রায় দুই ঘণ্টা বিলম্বের পরে প্রাথমিকভাবে শুনানি শুরু হয়েছিল।

কিন্তু জুম্মার নামাজের কারণে দুপুর ১টায় শুরু হওয়ার পরপরই সেগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়। অন্যদিকে, জিও নিউজ জানিয়েছে, বিচারকরা ‘ইমরানপন্থী’ স্লোগান তোলার পরে আদালত কক্ষ ছেড়ে চলে গেছেন।

দুপুর আড়াইটার পর আবার শুনানি শুরু হলে ইমরান তার আইনি দলের সঙ্গে আদালতে উপস্থিত ছিলেন এবং তার আইনজীবী খাজা হারিস তার যুক্তি উপস্থাপন করেন।

হারিস আদালতে বলেন, জাতীয় জবাবদিহি ব্যুরোর (এনএবি) পদক্ষেপগুলি বেআইনি। তদন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্তে পরিণত হওয়ার পরেই এনএবি গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করতে পারে।