০৪:৩৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪, ২৮ চৈত্র ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নাঙ্গলকোটে বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট, জোর পূর্বক উচ্ছেদ চেষ্টা!

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের ঢালুয়া ইউনিয়নের বায়রা গ্রামে রবিবার সকালে সম্পত্তির জের ধরে ছকন মিয়ার বসতঘর ভাংচুর, নগদ টাকা, স্বর্ণ অলংকার ও গরু লুটের অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের হাবিবুর রহমান, ওহাবমিয়া, নেছার উদ্দিন, হাছান আহম্মদ ও ইস্রাফিলের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে ছকন মিয়া বাদি হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের উপ পরিদর্শক রবিউল সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

স্থানীয় ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বায়রা গ্রামের ছকন মিয়ার বাড়িঘরে রবিবার একই গ্রামের মৃত আব্দুল মালেকের পুত্র হাবিবুর রহমান, মৃত ছিদ্দিকুর রহমানের পুত্র ওহাব মিয়া, নেছার উদ্দিন, ওহাব মিয়ার পুত্র হাছান আহম্মদ, এবায়েদুল হকের পুত্র ইস্রাফিল ছকন মিয়ার বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে তার ছেলে জসিম উদ্দিনের স্ত্রী আয়েশা বেগমকে গলা ধাক্কা দিয়ে ঘর থেকে বের করে দেয়। পরে হামলাকারীরা ঘরে থাকা আলমিরা ভেঙ্গে নগদ ১০লাখ টাকা, ৫ ভরি সোনার গহনা ও ৪টি গরু লুট করে নিয়ে যায়। এসময় হামলাকারীরা তাদের গাছপালা কেটে পেলে, টিউবওয়েল ও বাথরুম এবং গোয়াল ঘর ভাংচুর করে। এঘটনায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভূক্তভোগীরা।

অভিযুক্ত হাবিবুর রহমান বলেন, আমরা আমাদের জায়গা দখল করে ঘরে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছি, তবে লুটপাটের বিষয়টি মিথ্যা। নাঙ্গলকোট থানা উপ-পরিদর্শক রবিউল বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লেখকের পরিচিতি

জনপ্রিয় সংবাদ

রোড মার্চ সফল করার লক্ষ্যে নাঙ্গলকোটে বিএনপির গনমিছিল ও সমাবেশ

নাঙ্গলকোটে বাড়িঘর ভাংচুর, লুটপাট, জোর পূর্বক উচ্ছেদ চেষ্টা!

আপডেট সময় : ০৯:০১:৫৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ মে ২০২৩

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের ঢালুয়া ইউনিয়নের বায়রা গ্রামে রবিবার সকালে সম্পত্তির জের ধরে ছকন মিয়ার বসতঘর ভাংচুর, নগদ টাকা, স্বর্ণ অলংকার ও গরু লুটের অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের হাবিবুর রহমান, ওহাবমিয়া, নেছার উদ্দিন, হাছান আহম্মদ ও ইস্রাফিলের বিরুদ্ধে। এ ব্যাপারে ছকন মিয়া বাদি হয়ে নাঙ্গলকোট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। নাঙ্গলকোট থানা পুলিশের উপ পরিদর্শক রবিউল সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।

স্থানীয় ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বায়রা গ্রামের ছকন মিয়ার বাড়িঘরে রবিবার একই গ্রামের মৃত আব্দুল মালেকের পুত্র হাবিবুর রহমান, মৃত ছিদ্দিকুর রহমানের পুত্র ওহাব মিয়া, নেছার উদ্দিন, ওহাব মিয়ার পুত্র হাছান আহম্মদ, এবায়েদুল হকের পুত্র ইস্রাফিল ছকন মিয়ার বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে তার ছেলে জসিম উদ্দিনের স্ত্রী আয়েশা বেগমকে গলা ধাক্কা দিয়ে ঘর থেকে বের করে দেয়। পরে হামলাকারীরা ঘরে থাকা আলমিরা ভেঙ্গে নগদ ১০লাখ টাকা, ৫ ভরি সোনার গহনা ও ৪টি গরু লুট করে নিয়ে যায়। এসময় হামলাকারীরা তাদের গাছপালা কেটে পেলে, টিউবওয়েল ও বাথরুম এবং গোয়াল ঘর ভাংচুর করে। এঘটনায় প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন ভূক্তভোগীরা।

অভিযুক্ত হাবিবুর রহমান বলেন, আমরা আমাদের জায়গা দখল করে ঘরে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছি, তবে লুটপাটের বিষয়টি মিথ্যা। নাঙ্গলকোট থানা উপ-পরিদর্শক রবিউল বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।