১২:৩২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

নাঙ্গলকোটে ট্রেনে ছোড়া পাথরে আহত মহিলা লীগ নেত্রী

চলন্ত ট্রেনে ছোড়া পাথরে আহত হয়েছেন চাঁদপুর পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের (৭, ৮ ও ৯ নম্বর) কাউন্সিলর ও জেলা যুব মহিলা লীগ সভাপতি ফরিদা ইলিয়াস (৫৫)। গতকাল শুক্রবার রাত নয়টায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোট এলাকায় মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ফরিদা ইলিয়াস চাঁদপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ফরিদা ইলিয়াস বলেন, চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুরগামী আন্তনগর মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রী ছিলেন তিনি। গতকাল রাত নয়টায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোট এলাকায় পৌঁছালে বাইরে থেকে কে বা কারা ট্রেনের জানালা দিয়ে পাথর ছুড়ে মারে। এতে পাথরের আঘাতে আহত হয়ে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। ট্রেনটি চাঁদপুর পৌঁছানোর পর তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তাঁর চেতনা ফিরে আসে। বিষয়টি তিনি চাঁদপুর জিআরপি থানাকে জানিয়েছেন।

খবর পেয়ে রাতেই ফরিদা ইলিয়াসকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমানসহ আওয়ামী লীগ ও মহিলা লীগের নেতারা।

হাসপাতালের চিকিৎসক মোবারক হোসেন চৌধুরী বলেন, ফরিদা ইলিয়াসের শরীরে পাথরের আঘাত লেগেছিল। তবে তেমন কিছু হয়নি। মূলত, তিনি আতঙ্কিত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। আপাতত তিনি আশঙ্কামুক্ত।

লেখকের পরিচিতি

জনপ্রিয় সংবাদ

রোড মার্চ সফল করার লক্ষ্যে নাঙ্গলকোটে বিএনপির গনমিছিল ও সমাবেশ

নাঙ্গলকোটে ট্রেনে ছোড়া পাথরে আহত মহিলা লীগ নেত্রী

আপডেট সময় : ১০:২৬:১৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ মার্চ ২০২১

চলন্ত ট্রেনে ছোড়া পাথরে আহত হয়েছেন চাঁদপুর পৌরসভার সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডের (৭, ৮ ও ৯ নম্বর) কাউন্সিলর ও জেলা যুব মহিলা লীগ সভাপতি ফরিদা ইলিয়াস (৫৫)। গতকাল শুক্রবার রাত নয়টায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোট এলাকায় মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ফরিদা ইলিয়াস চাঁদপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ফরিদা ইলিয়াস বলেন, চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুরগামী আন্তনগর মেঘনা এক্সপ্রেস ট্রেনের যাত্রী ছিলেন তিনি। গতকাল রাত নয়টায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোট এলাকায় পৌঁছালে বাইরে থেকে কে বা কারা ট্রেনের জানালা দিয়ে পাথর ছুড়ে মারে। এতে পাথরের আঘাতে আহত হয়ে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। ট্রেনটি চাঁদপুর পৌঁছানোর পর তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তাঁর চেতনা ফিরে আসে। বিষয়টি তিনি চাঁদপুর জিআরপি থানাকে জানিয়েছেন।

খবর পেয়ে রাতেই ফরিদা ইলিয়াসকে দেখতে হাসপাতালে ছুটে যান চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র জিল্লুর রহমানসহ আওয়ামী লীগ ও মহিলা লীগের নেতারা।

হাসপাতালের চিকিৎসক মোবারক হোসেন চৌধুরী বলেন, ফরিদা ইলিয়াসের শরীরে পাথরের আঘাত লেগেছিল। তবে তেমন কিছু হয়নি। মূলত, তিনি আতঙ্কিত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। আপাতত তিনি আশঙ্কামুক্ত।