০৪:৫৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাহিত্যিক সায়েম মাহবুব’র স্মৃতিচিহৃগুলো সংরক্ষণ করা হোক

সাহিত্যিক সায়েম মাহবুবের (১৯৭২-২০২৩) স্মৃতি চিহৃগুলো সংরক্ষণ করা হোক। এএসএম
সায়েম মাহবুব মজুমদার ছিলেন একাধারে অধ্যক্ষ, লেখক, সাংবাদিক, সম্পাদক, গবেষক ও
কলামিষ্ট। বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানান ধরণের প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠায় রয়েছে যথেষ্ঠ তার অবদান।
লেখালেখি জগতে ব্যতিক্রমী লেখা তৈরি করতে পারতেন। যার ফলে নিজ এলাকা নাঙ্গলকোটে তিনি
নবীনও তরুন লেখক-সংবাদকর্মীদের লেখা শিখার জন্য কৌশলাদি শিখাতেন ও পরামর্শ দিতেন। নিজ
পত্রিকা নাঙ্গলকোট এক্সপ্রেসে তরুন লেখকদের লেখা প্রচার করতেন। নিজেও বিগত ৩০ বছর ধরে
লিখেছেন জাতীয় দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক পত্রিকা ও অনলাইনে। জাতীয়
প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন্ধসঢ়; মন্ত্রনালয়ে বন্ধু বান্ধব ও ছাত্র থাকার সুবাধে যাতায়াত করতেন। শিক্ষা
বিস্তারে প্রচুর সময় ব্যয় করতেন। উল্লেখ্য যে সাহিত্যিক সায়েম মাহবুব ১৯৭২ সালের ১৫
জানুয়ারী জন্মগ্রহণ করেন ও ২১ মে ২০২৩ রবিবার ঢাকা পিজি হাসপাতালে (সার্টিফিকেট
অনুসারে) ৫২ বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন। শিক্ষা বিস্তারের জন্য তিনি দেশ বিদেশ ঘুরে
বেড়িয়েছেন। পেয়েছেন স্থানীয়, জাতীয়ও আর্ন্তজাতিক পুরষ্কারও সম্মাননা। পবিত্র হজ্ব পালন
করেছেন। সায়েম মাহবুব মজুমদারের প্রকাশিতগ্রন্থ সমূহ হলো, মা, ফুলপড়া, চরপাতার
সাহানা, সাধের অসুখ, নিস্ফল স্বপ্ন অন্যতম। তিনি নিজ এলাকা নাঙ্গলকোটের ইতিহাস
সচিব আবদুল আউয়াল, কবি এস এম আবুল বাশারের পর তিনিই লিখেছেন। এছাড়াও
অর্ধশতাধিক যৌথ গ্রন্থ। এই মানুষটির শিক্ষাকালীন সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, নিজ এলকা
নাঙ্গলকোট, কুমিল্লাসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্মৃতিচিহৃগুলো সংরক্ষণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট
কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

আজিম উল্যাহ হানিফ
সদস্য সচিব-‘সাংবাদিক সায়েম মাহবুব স্মৃতি সংসদ
নাঙ্গলকোট,কুমিল্লা।
০১৮৩৪-৩৮৯৮৭১

লেখকের পরিচিতি

জনপ্রিয় সংবাদ

রোড মার্চ সফল করার লক্ষ্যে নাঙ্গলকোটে বিএনপির গনমিছিল ও সমাবেশ

সাহিত্যিক সায়েম মাহবুব’র স্মৃতিচিহৃগুলো সংরক্ষণ করা হোক

আপডেট সময় : ০৯:৩২:৫২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ মে ২০২৩

সাহিত্যিক সায়েম মাহবুবের (১৯৭২-২০২৩) স্মৃতি চিহৃগুলো সংরক্ষণ করা হোক। এএসএম
সায়েম মাহবুব মজুমদার ছিলেন একাধারে অধ্যক্ষ, লেখক, সাংবাদিক, সম্পাদক, গবেষক ও
কলামিষ্ট। বহু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ নানান ধরণের প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠায় রয়েছে যথেষ্ঠ তার অবদান।
লেখালেখি জগতে ব্যতিক্রমী লেখা তৈরি করতে পারতেন। যার ফলে নিজ এলাকা নাঙ্গলকোটে তিনি
নবীনও তরুন লেখক-সংবাদকর্মীদের লেখা শিখার জন্য কৌশলাদি শিখাতেন ও পরামর্শ দিতেন। নিজ
পত্রিকা নাঙ্গলকোট এক্সপ্রেসে তরুন লেখকদের লেখা প্রচার করতেন। নিজেও বিগত ৩০ বছর ধরে
লিখেছেন জাতীয় দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক পত্রিকা ও অনলাইনে। জাতীয়
প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন্ধসঢ়; মন্ত্রনালয়ে বন্ধু বান্ধব ও ছাত্র থাকার সুবাধে যাতায়াত করতেন। শিক্ষা
বিস্তারে প্রচুর সময় ব্যয় করতেন। উল্লেখ্য যে সাহিত্যিক সায়েম মাহবুব ১৯৭২ সালের ১৫
জানুয়ারী জন্মগ্রহণ করেন ও ২১ মে ২০২৩ রবিবার ঢাকা পিজি হাসপাতালে (সার্টিফিকেট
অনুসারে) ৫২ বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন। শিক্ষা বিস্তারের জন্য তিনি দেশ বিদেশ ঘুরে
বেড়িয়েছেন। পেয়েছেন স্থানীয়, জাতীয়ও আর্ন্তজাতিক পুরষ্কারও সম্মাননা। পবিত্র হজ্ব পালন
করেছেন। সায়েম মাহবুব মজুমদারের প্রকাশিতগ্রন্থ সমূহ হলো, মা, ফুলপড়া, চরপাতার
সাহানা, সাধের অসুখ, নিস্ফল স্বপ্ন অন্যতম। তিনি নিজ এলাকা নাঙ্গলকোটের ইতিহাস
সচিব আবদুল আউয়াল, কবি এস এম আবুল বাশারের পর তিনিই লিখেছেন। এছাড়াও
অর্ধশতাধিক যৌথ গ্রন্থ। এই মানুষটির শিক্ষাকালীন সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, নিজ এলকা
নাঙ্গলকোট, কুমিল্লাসহ দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্মৃতিচিহৃগুলো সংরক্ষণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট
কর্তপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

আজিম উল্যাহ হানিফ
সদস্য সচিব-‘সাংবাদিক সায়েম মাহবুব স্মৃতি সংসদ
নাঙ্গলকোট,কুমিল্লা।
০১৮৩৪-৩৮৯৮৭১